ঝগড়ায় অকাল মৃত্যু

Jagraবিএনিউজ ডেস্ক: স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ! বাবা-মা, ভাই-বোন, বন্ধু, সহকর্মী, আত্মীয়-স্বজন সবার সঙ্গে সব সময় ঝগড়া লেগেই আছে! সাবধান। পারিবারিক কলহ আর বেশি ঝগড়া অকাল মৃত্যু ডেকে আনে।
সমকাল ডেস্কস্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ! বাবা-মা, ভাই-বোন, বন্ধু, সহকর্মী, আত্মীয়-স্বজন সবার সঙ্গে সব সময় ঝগড়া লেগেই আছে! সাবধান। পারিবারিক কলহ আর বেশি ঝগড়া অকাল মৃত্যু ডেকে আনে। ডেনিস গবেষকরা বলছেন, যারা সব সময় ঘরে কিংবা আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু বা প্রতিবেশীর সঙ্গে ঝগড়া করেন, বিশেষ করে পারিবারিক কলহে লিপ্ত থাকেন, তাদের মাঝবয়সে মারা যাওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ। বৃহস্পতিবার জার্নাল অব এপিডেমিওলজি অ্যান্ড কমিউনিটি হেলথেতাদের গবেষণা রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে।ঝগড়ায় অকাল মৃত্যুগবেষকরা ২০০০ সাল থেকে ডেনমার্কের প্রায় এক হাজার নারী-পুরুষের স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার ওপর সমীক্ষা চালান। এসব মানুষের বয়স ২০০০ সালে ৩৬ থেকে ৫২ বছরের মধ্যে ছিল। ১১ বছর পর গবেষণায় অংশ নেওয়া ৪ শতাংশ নারী ও ৬ শতাংশ পুরুষ মারা যান। তাদের মৃত্যুর সঙ্গে গবেষকরা ঝগড়াঝাটির যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছেন।গবেষকরা বলেন, যারা সামাজিক বন্ধনের সম্পর্ক যেমন জীবনসঙ্গী, আত্মীয়, বন্ধু বা প্রতিবেশীর সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া করেন, তাদের অকালমৃত্যুর ঝুঁকি দ্বিগুণ বা তিন গুণ। এ ছাড়া যারা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঝগড়াঝাটির তালেই থাকেন, তাদের হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায়।গবেষক দলের অন্যতম কোপেনহেগেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রিক্কি লান্ড বলেন, সম্পর্কের মধ্যকার বিরোধ মোকাবেলা করতে শিখতে হবে। দম্পতি ও পরিবারের মধ্যে সংঘাত কমাতে পারলে অকালমৃত্যুর ঘটনা কমবে। জীবন রক্ষা পাবে। সূত্র :বিবিসি অনলাইন।