প্রচ্ছদ মানবাধিকার

ঝটপট ইফতার তৈরির রেসিপি

:: ইশানা ইশরাত ::

এসে গেছে রোজার মাস। সেই সঙ্গে গৃহিনীদের ইফতার তৈরি নিয়ে টেনশন। সেই টেনশন থেকে খানিকটা মুক্তি দিতে প্রতিমুহূর্ত.কম লাইফস্টাইলের এই বিশেষ আয়োজন। ঝটপট ইফতার তৈরির কিছু রেসিপি।

ছোলা ভাজি

ইফতারের একটি মুখরোচক খাবার হল ছোলা ভাজি। আমরা রোযার মাস ছাড়াও সারা বছর কম বেশি ছোলা ভাজি খেয়ে থাকি।

সচরাচর দেখা যায় বিকেলে ক্যান্টিনে বন্ধুরা বসে ছোলা ভাজি বেশি খাওয়া হয়। কিন্তু রোজার মাসে ইফতারের ছোলা ভাজির যে স্বাদ পাওয়া যায় অন্য সময় সে স্বাদ টা আর পাওয়া যায় না।

ইফতারে আমার পরিবারে ছোলা ভাজি অবশ্যই থাকবে, আপনার ইফতারে কি থাকছে ছোলা ভাজি? যদি না থাকে তাহলে এখনি ঝটপট তৈরি করুন মজাদার ছোলা ভাজি।

উপকরণ : ছোলা ও আলু পরিমান মত, কাচা মরিচ, কাচা পেয়াজ, রসুন বাটা, আদা বাটা, জিরা বাটা, সামান্য মসলা বাটা, হলুদের গুড়া, লবণ ও তেল।

প্রনালী : ছোলা রান্না করার আগের দিন রাতে বা ৪-৫ ঘন্টা আগে ভিজিয়ে রাখুন। ভিজানো ছোলা ও আলু টুকরো করে কেটে ভাল করে ধুয়ে নিন। তারপর লবণ ও কাচা মরিচ দিয়ে গরম তাপে সিদ্ধ করুন।

গরম পাত্রে পরিমান মত তেল দিয়ে পেয়াজ কুচি হালকা বাদামী রঙ ভেজে নিন। এবার রসুন, আদা, জিরা ও মসলা বাটা ও সামান্য লবণ দিয়ে ভাল করে চুলার আচে মসলা গুলো কষিয়ে নিন। কষানো মসলার মধ্যে সিদ্ধ করা ছোলা ও আলু দিয়ে নাড়তে থাকুন প্রায় ২-৩ মিনিট। তারপর ছোলার মধ্যে কাচা-পেয়াজ কুচি একটু বেশি করে দিয়ে ১মিনিট নেড়ে চুলার আচ কমিয়ে পাত্রটি নামিয়ে ফেলুন।

পিয়াজু

গরম গরম পিয়াজু খেতে অনেক মজা। আমরা বিকেলের নাস্তা হিসেবে পিয়াজু, সিঙ্গারা, হালুয়া এই গুলো বেশি খেয়ে থাকি। কিন্তু রোজার মাসে সবার ঘরে ঘরে পিয়াজুর আইটেম থাকবেই। কম বেশি সবাই পিয়াজু বানাতে পারে, পিয়াজু বানানো খুবই সহজ। যে কোন ডাল দিয়ে পিয়াজু বানানো যায় তবে এর মধ্যে খেসারি ডালের পিয়াজু অনেক মচমচা হয়।

উপকরন : যে কোন ডাল বাটা পরিমান মত, আদা বাটা, জিরা বাটা, রসুন বাটা, কাচা মরিচ কুচি, পেয়াজ কুচি, ধনিয়া পাতা কুচি, লবণ ও হলুদের গুড়া।

প্রনালী : প্রথমে ডাল ৪-৫ ঘন্টা ভিজিয়ে নিতে হবে। ভিজানো ডাল পাটায় বেটে হালকা মিহি করতে হবে। তারপর ডালের ভিতর সামান্যে লবন, বেশি করে পেয়াজ কুচি, আদা, জিরা, ও রসুন বাটা, কাচা মরিচ কুচি, হলুদের গুড়া ও ধনিয়া পাতা কুচি দিয়ে এক সাথে ভাল করে মিক্সড করুন।

এবার চুলায় একটি পাত্র দিয়ে বেশি আচে গরম করে নিন। তারপর পাত্রে পরিমান মত তেল দিয়ে গরম করতে থাকুন। এবার ডাল বাটা হাতে গোল চ্যাপ্টা করে গরম ডুবো তেলে ছেড়ে দিয়ে ভাঁজতে থাকুন।

পিয়াজু ভেজে অন্য একটা পাত্রে টিস্যু পেপার রেখে তার ওপর রাখুন। এবার গরম পিয়াজু ইফতারে মুড়ির সাথে বা ইফতারের শেষে গরম ভাতও পরিবেশন করতে পারেন।

সবজি পাকোরা

শরীর সুস্থ্য ও সবল রাখার জন্য আমাদের প্রতিদিন সবজি খাওয়া উচিত। রোজার দিন ইফতারে তাই যোগ করা যেতে পারে সবজি পাকোরা।  বিভিন্ন সবজি দিয়ে তৈরি করা সবজি পাকোরা গরম গরম খেতে দারুন মজা।

উপকরন : বাধা কপি কুচি, আলু কুচি, গাজর কুচি, মটরশুঁটি, পেয়াজ কুচি, কাচা মরিচ কুচি, ময়দা, নুডুস সিদ্ধ, কর্নফ্লাওয়ার, ডিম , ধনিয়া পাতা কুচি, সাদা গোলমরিচের গুড়া, লবণ ও তেল পরিমানমত।

প্রনালী : প্রথমে পরিমান মত গাজর, আলু ও মটরশুঁটি সিদ্ধ করে নিন। অন্য একটি পাত্রে ১ টা বা ২ টা ডিম ফাটিয়ে নিন। এবার ফাটানো ডিমের মধ্যে উপরক্ত সব উপকরন পরিমানমত দিয়ে ভাল করে মিক্সড করুন।

তারপর একটি পাত্রে ডুবো তেল দিয়ে চুলায় আচ দিতে থাকুন। তেল গরম হলে তার মধ্যে মাখানো সবজি গোল গোল করে বা চ্যাপটা করে বা খামচিয়ে নিয়ে ডুবো তেলে ছেড়ে দিন। একটু লালচে রঙ এ ভেজে অন্য একটা পাত্রে তুলে রাখুন। এবার গরম গরম মচমচা সবজি পাকোরা যে কোন সস দিয়ে পরিবেশন করুন।

আলু চপ

ইফতারের আরেকটি মুখরোচক আইটেম হলো আলু চপ। কম সময়ে ঝটপট তৈরি করে নিন মজাদার আলু চপ।
উপকরণ : আলু ২৫০ গ্রাম, পেয়াজ কাটা ও বাটা, রসূন, আদা বাটা, জিরা গুড়া, কাবাব মসলা, কাঁচা মরিচ, কিমা, বেসন, ডিম, বিস্কিট গুড়া, গরম মসলা, তেল, লবন ও তেজপাতা।

প্রণালী : প্রথমে আলু সিদ্ধ করে চটকে নিতে হবে। এরপর সিদ্ধ আলু সব মসলা মাখিয়ে চুলে দিয়ে কষাতে হবে। কিমা আগেই কষিয়ে নিতে হবে। এরপর আলু কিছুক্ষণ হওয়ার পর কিমা দিয়ে আবার নাড়তে হবে। মাখা মাখা হয়ে গেলে চুলা থেকে নামাতে হবে।

এরপর ওই মিশ্রণ চপের আকারে তৈরী করতে হবে। বানানো চপগুলো বিস্কিট গুড়া মাখিয়ে ১/২ ঘন্টা নরমাল ফ্রিজে রাখতে হবে।

একটা বাটিতে বেসন, ডিম, আদা, পেয়াজ, সামান্য রসূন বাটা, একটু শুকনা মরিচের গুড়া, পরিমানমতো লবন, ১ চামচ কর্নফ্লাওয়ার ও বেকিং পাউডার পানি দিয়ে গোলাতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে গোলানো কাই যেন খুব পাতলা বা ঘন না হয়।

কড়াই বা ফ্রাইপেন-এ তেল গরম করতে হবে। ফ্রিজে রাখা চপ বেসনের কাইতে চুবিয়ে গরম তেলে হালকা আচে বাদামি রঙ ধারণ করা পর্যন্ত ভাজতে হবে।

ডিম চপ

ঝটপট ও অল্প সময়ে ডিম দিয়ে হরেক রকমের খাবার তৈরি করা যায়। এই রমজান মাসে ইফতারের টেবিলে সুস্বাদু ডিমের চপ বানিয়ে পরিবারে পরিবেশন করতে পারেন।

উপকরন : সিদ্ধ করা ডিম ৪টা, কাচা ডিম ২টা, সিদ্ধ করা আলু ২টা, ময়দা পরিমান মত, আদা ও পেয়াজ বাটা, নুন, বিস্কুটের গুড়া পরিমানমত, ঘি ও যে কোন সস ইত্যাদি।

প্রস্তুত প্রনালী : প্রথমে ডিমগুলো সিদ্ধ করে নিন। সিদ্ধ করা ডিমের খোসা ছাড়িয়ে ডিম ছুরি দিয়ে কেটে কুসুম গুলো বের করে অন্য পাত্রে রাখুন। এবার কুসুমের সাথে আদা ও পেয়াজ বাটা এবং নুন দিয়ে ভাল করে হাত দিয়ে পেস্ট করুন। পেস্ট করা কুসুম সিদ্ধ করা ডিমের খোলের ভিতর সমান করে পুরু করে ভরে দিন।

তারপর সিদ্ধ করা আলুর সাথে পরিমান মত ময়দা ও নুন একসাথে হালকা ঘন করে পেস্ট করে ডিমের ওপর পাতলা পর্দার মত মাখিয়ে নিন। এবার কাচা ডিমগুলো ভাল করে গুলিয়ে নিন ।

আলুর প্রলেপ দেওয়া ডিমগুলো একটি একটি করে গোলানো কাচা ডিমের মধ্যে বিস্কুটের গুড়া দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে ঘি-এ বাদামী রঙ এ ভেঁজে নিন। তৈরি হয়ে গেল মজাদার ডিমের চপ ।

ইফতারের টেবিলে অনান্য খাবারের সাথে যে কোন প্রডাক্টের সস দিয়ে ডিমের চপ পরিবেশন করুন। ডিমের চপ অনেক সুস্বাদু ও মজাদার একটা খাবার।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় : ০৩৩০ ঘন্টা, জুলাই ১০, ২০১৩
বিএইচ

Adil Travel Winter Sale 2ndPage

মানবাধিকার : সকল সংবাদ

আজকের এই দিনে
লোকে-যারে-বড়-বলে-বড়-সেই-হয়
আবদুল আউয়াল ঠাকুর : বাংলা প্রবচন হচ্ছে, আপনারে বড় বলে বড় সেই নয়, লোকে যা বড় বলে বড় সেই হয়। সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতাসীন হওয়ার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি কেন্দ্র করে এমন কিছু...