পচা গম আ'লীগের লোকজনকে খাওয়ানো হোক: খালেদা জিয়া

khaleda 7বিএ নিউজ: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আ'লীগ সরকারের পচা গম আমদানির সমালোচনা করে বলেন, ‘এদের দুর্নীতির সীমা নেই। লাভের আশায় তারা বিদেশ থেকে পচা গম আমদানি করেছে। সেই গম সেনাবাহিনীকে দিতে চেয়েছিল, কিন্তু তারা ফিরিয়ে দিয়েছে। পরে পুলিশকে দিতে চেয়েছিল, তারাও নিতে অস্বীকার করেছে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘এই গম কেউ নেবে না, সরকার চেষ্টা করবে জনগণকে খাওয়াতে। আমি বলতে চাই- এই গম আওয়ামী লীগের লোক জনকে খাওয়ানো হোক। তারা দেশের টাকা খেয়ে খেয়ে মোটা হয়েছে, পচা গম খেয়ে আরো মোটা হবে।’


তিনি বলেন, ‘যেহেতু তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি, সেহেতু জনগণের প্রতি তাদের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। তারা কেবল দুর্নীতি করে টাকা বানাচ্ছে। সুইস ব্যাংকে তাদের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা জমা হচ্ছে।’


বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এই অবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না। পবিত্র রমজান মাসে যেভাবে আমরা একত্রিত হয়েছি, আগামী দিনেও যেন এমনিভাবে  দেশের শান্তি রক্ষায় এক সঙ্গে বসতে পারি।’


জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমদের সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে অংশ নেন- বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, জাপা (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, এলডিপির রেদোয়ান আহমেদ, জামায়াতে ইসলামীর রিদওয়ান উল্লাহ শাহিদী, ইসলামী ঐক্যজোটের আবদুল লতিফ নেজামী, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, জাগপার শফিউল আলম প্রধান, এনডিপির খন্দকার গোলাম মূর্তজা, ন্যাপের জেবেল রহমান গানি, লেবার পার্টির মুস্তাফিজুর রহমান ইরান, ন্যাপ-ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, বিজেপির সালাহউদ্দিন মতিন প্রকাশ, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, জমিয়তে উলামা ইসলামের মাওলানা মজিবুর রহমান, পিপলস লীগের সৈয়দ মাহবুব হোসেন, ডিএল’র সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি প্রমুখ।


এছাড়া জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আসম আবদুল রব, বিএনপি থেকে বহিস্কৃত যুগ্ম-মহাসচিব আশরাফ হোসেন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক এমএম বাহাউদ্দিন, সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ ও মোস্তফা কামাল মজুমদার ছাড়াও চীন ও কোরিয়ার কয়েকজন কূটনীতিকও ইফতারে উপস্থিত ছিলেন।


ইফতার শুরুর আগে অনুষ্ঠানস্থলে টেবিলে টেবিলে গিয়ে আগতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন খালেদা জিয়া। এরপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাতে শরিক হন।

শনিবার বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে জাতীয় পার্টি (জাফর) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে যোগ দিয়ে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘কে বড় আর কে ছোট তা বিচার করার সময় নেই। দেশের জনগণকে রক্ষা করার জন্য সবাইকে একসঙ্গে বসতে হবে।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেছেন, ‘লেডি হিটলারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করার জন্য দেশের সব রাজনৈতিক নেতাদের ঐক্যবদ্ধভাবে বসতে হবে।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এই জালেম সরকারের হাত থেকে জনগণকে বাঁচাতে হবে। তাই আসুন, এই ইফতার মাহফিলে আমরা সবাই দোয়া করি- আল্লাহ যেন এই লেডি হিটলার ও জালেম সরকারের হাত থেকে জনগণকে রক্ষা করে।’