নতুন ইতিহাস গড়তে চান চান মাশরাফি-তামিমরা

বিএ নিউজ:  Mash-Shakib২০০৭ বিশ্বকাপের জয়টিই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশের একমাত্র সুখস্মৃতি। আর জয় নেই কোনো। দেশের মাটিতেও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে দলের অধিনায়ক থেকে শুরু করে কোচেরও বিশ্বাস, ইতিহাস বদলে দেওয়ার আদর্শ সময় ও সুযোগ এসেছে এবার।

বড় দলগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় এখন আর চমক নয়। মাশরাফি বিন মুর্তজার দল জিতছে নিয়মিতই। তবে দুটি দলের বিপক্ষে এখনও সেটি জোর দিয়ে বলার জো নেই; দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় যে মাত্র একটি করে।

কার্ডিফে ২০০৫ সালে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফিতে মোহাম্মদ আশরাফুলের বীরত্বে অস্ট্রেলিয়া বধ; ২০০৭ বিশ্বকাপে সেই আশরাফুলেরই আরেকটি অসাধারণ পারফরম্যান্সে সেই সময়ের এক নম্বর দল দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানো। বড় এই দুই দলের বিপক্ষে বাংলাদেশের সুখস্মৃতি বলতে এই। তিন সংস্করণ মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২৬ ম্যাচে আর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২৪ ম্যাচে সবেধন নীলমনি ওই একটি করে জয়।

এবার উন্নতির ধারায় থাকা বাংলাদেশ দল নিজ দেশেই পাচ্ছে এই দুই দলকে। আগামী সেপ্টেম্বরে আসবে অস্ট্রেলিয়া; তাদের নিয়ে ভাবনাটাও তাই পরে। দক্ষিণ আফ্রিকা চলে এসেছে বাংলাদেশের আঙিনায়, আপাতত হিসাব-নিকাশ চুকানোর পালা প্রোটিয়াদের সঙ্গে।

দেশের মাটিতে ১০ ম্যাচ খেলে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে সবগুলোতেই হেরেছে বাংলাদেশ। ২০০৮ সালে মিরপুর টেস্টে ৫ উইকেটের হার বাদ দিলে বাকি সব ম্যাচে স্বাগতিকরা হেরেছে বাজেভাবে। এমনকি দুই দলের সবশেষ দেখাতেও বাংলাদেশের হয়েছিল বিব্রতকর অভিজ্ঞতা। ২০১১ বিশ্বকাপে মিরপুরে দক্ষিণ আফ্রিকার ২৮৪ রান তাড়ায় বাংলাদেশ গুটিয়ে গিয়েছিল ৭৮ রানে!

তবে সেই বাংলাদেশ আর এই বাংলাদেশের পার্থক্য অনেক। মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বে বদলে গেছে বাংলাদেশ। মাশরাফি জানালেন, এবার সুযোগ এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রেকর্ড একটু ভদ্রস্থ করার।

“ওয়ানডেতে আমরা এখন দারুণ আত্মবিশ্বাসী এক দল। জয়ের জন্যই মাঠে নামি আমরা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও জিততেই নামব। তবে আগেও যেমন বলেছি, কাজটি কঠিন। ভারতের চেয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা অনেক ভারসাম্যপূর্ণ দল। তবে আমরাও ভালো খেলছি। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চাই।”

Adil Travel Winter Sale 2ndPage

খেলা : সকল সংবাদ

আজকের এই দিনে
লোকে-যারে-বড়-বলে-বড়-সেই-হয়
আবদুল আউয়াল ঠাকুর : বাংলা প্রবচন হচ্ছে, আপনারে বড় বলে বড় সেই নয়, লোকে যা বড় বলে বড় সেই হয়। সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতাসীন হওয়ার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি কেন্দ্র করে এমন কিছু...