চুলের পোশাক

P5 china-shikkhikar-chuler-ঢাকা: ও হেনরির ‘গিফট অফ দ্য ম্যাজাই’ গল্পের ডেলাকে মনে আছে? স্বামী জিমের জন্য প্ল্যাটিনাম ফব চেন কিনতে নিজের লম্বা, রেশমের মত চুল বিক্রি করে দিয়েছিল সে। চীনের জিয়াং রেনজিয়ান অবশ্য চুল বিক্রি করেননি। তবে স্বামীকে দেয়া তার উপহারও যে অভিনব, সে বিষয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই। নিজের ঝরে পড়া চুল নিয়মিতভাবে জমিয়ে জমিয়ে দীর্ঘ ১১ বছর ধরে স্বামীর জন্য একটি টুপি বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। সঙ্গে তৈরি করেছেন একটি সোয়েটারও।
চীনের অবসরপ্রাপ্ত এই শিক্ষিকা ৩৪ বছর বয়স থেকে নিজের চুল জমানো শুরু করেন। তার বক্তব্য, আমার লম্বা, কালো রেশমের মতো চুল দেখে অনেকেরই হিংসা হতো। আমি চেয়েছিলাম চুলগুলো সংগ্রহ করে রাখতে।
প্রতিদিন তাই চুল আঁঁচড়ানোর সময় চিরুনিতে আটকে থাকা চুল জমাতেন তিনি। সেই চুলকে বোনার উপযোগী উলে পরিণত করাও কম পরিশ্রমের কাজ ছিল না। সোয়েটার বোনার একটা উল তৈরি করতে তার লেগেছে ১৫ টুকরো চুল।
অন্যদিকে, ২০টি চুলের টুকরো জুড়ে তৈরি হয়েছে টুপি বোনার একটা উল। সোয়েটার ও টুপি তৈরি করতে লেগেছে প্রায় ১ লাখ ১০ হাজার চুল। জিয়াংয়ের অবশ্য বক্তব্য, চুল দিয়ে বোনার পদ্ধতিটা কঠিন কিছু না। শুধু একটু ধৈর্য ও জমানোর ইচ্ছে থাকতে হবে।
২০০৩ থেকে তার বোনার কাজ শুরু। দীর্ঘ ১১ বছরের পরিশ্রমে বানিয়েছেন ৩৮২ গ্রাম ওজনের সোয়েটার এবং ১১৯ গ্রাম ওজনের টুপি। এতে তার স্বামী তো বেজায় খুশি নতুন টুপি উপহার পেয়ে। জিয়াং অবশ্য এতেই সন্তষ্ট নন। কালো সোয়েটারে সাদা অক্ষরে নিজের নাম ফুটিয়ে তুলতে চান তিনি। আর এর জন্য প্রয়োজন সাদা চুল। সেই চুল জমানোর প্রক্রিয়াও চলছে। আপাতত নিজের চুল দিয়েই স্বপ্নের জাল বুনে চলেছেন জিয়াং।