এ রায় অপ্রত্যাশিত : ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিনী

::প্রতিবেদন ::

গোলাম আযমের বিরুদ্ধে দেওয়া ৯০ বছরের কারাদণ্ডের রায় প্রত্যাখান করেছেন একাত্তরের বীর নারী ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিনী।

রায় ঘোষনার পরে হতাশা প্রকাশ করে এই বীর নারী বলেছেন, গোলাম আযমের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পরও শুধু বয়সের বিবেচনায় এই সাজা গ্রহণ করা যায় না।

সোমবার রায় ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ার প্রতিমুহূর্তকে একথা বলেন তিনি।

ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিনী বলেন, স্বাধীনতার ৪২ বছর পরেও যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়না, বিচার নিয়ে প্রহসন চলে তখন আমাদের সকল আশার প্রদীপই যেন নিভে যায়। আর গোলাম আযম এমন এক ঘৃণিত ব্যাক্তি যার অপরাধের কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। সেই তাকে যখন বয়সের অযুহাতে সাজা থেকে রেহাই দেয়া হয় তখন আমরা কি জবাব দেবো- একাত্তরের ২ লক্ষ মা-বোনেদের ?

একাত্তরের এই বীর নারী প্রশ্ন রেখে বলেন, সারা দেশের মানুষ আজ তাকিয়ে ছিল ট্রাইব্যুনালের দিকে। কিন্তু ট্রাইব্যুনাল সমগ্র দেশের মানুষকে হতাশ করেছে। সমগ্র জাতি এই রায়ে শোকাহত। এ রায় অপ্রত্যাশিত।

এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপের এক পর্যায়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন এত্তারের এই বীর মাতা। আবেগঘন কন্ঠে তিনি বলেন, এই জন্যই কি ৪২টি বছর অপেক্ষা করেছিলাম ?

তিনি আরও বলেন, গোলাম আযমের রায় নিয়ে নিশ্চয়ই দেশের সাধারণ মানুষের মধ্যে আগ্রহ ছিল, মানুষ আশা করেছিল ন্যায় বিচার হবে, চিহ্নিত এই নরপশুর বিচার হবে। কিন্তু, এই রায় কোনোভাবেই দেশের মানুষকে আশান্বিত করতে পারেনি।

এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপরত ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিনী

 

 


বাংলাদেশ স্থানীয় সময় : ১৫৫০ ঘন্টা, ১৫ জুলাই, ২০১৩
প্রতিবেদক : এহসান মাহমুদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
এএম